পোস্ট

চারিদিকে ই-কমার্স খোলার ধুম বনাম বাস্তবতা!

ছবি
হুট করেই অনলাইন প্ল্যাটফর্ম বা  ই-কমার্স এ নামতে নেই, নামার আগে অবশ্যই অভিজ্ঞ কারো সাথে পরামর্শ এবং বাজার যাচাই বাছাই করে নামা উচিৎ। একই সাথে  পণ্য নির্বাচন এবং ক্রয়ের ক্ষেত্রেও সাবধানতা অবলম্বন করা উচিৎ। কখনই অধিক মূল্যে প্রোডাক্ট কিনতে নেই, কোন জিনিষের বাজার ঊর্ধ্বমুখী হলেই যে ভবিষ্যতে সে জিনিষের বাজার ভালো হবে এমনটা আশা করতে নেই। 
ঘটনা  এক-    লক ডাউনের সময় নাফিস সিদ্ধান্ত নিল সে মাস্ক বেচবে। যেই ভাবা সেই কাজ। টাকা পয়সা গোছাতে গোছাতে ১ মাস লেগে গেল। মাস্ক কিনতে কিনতে আরো ১০ দিন। এরপরে মাস্ক বিক্রির উদ্দেশ্যে ফেইসবুকে একটা পেইজ খুলল। পরিচিত এক বড় ভাইয়ের কার্ডে ডলার থাকে। তিনি বুস্টিং করে দেন, দুনিয়ার সব কাস্টমার নাকি তার চেনা। ফেইসবুক পেইজে KN95 মাস্কের বিজ্ঞাপন দিল "মূল্য ৩৫০ টাকা পিস" ওমা, পাবলিক কমেন্টে এসে বলতে লাগল "এই মাস্ক ওমুক পেইজে ২৫০ টাকায় বেচে আর আপনারা ৩৫০তে বেচেন! ডাকাতির একটা সীমা আছে" কেউ কেউ কমেন্ট করছে "ডাকাতি করতে চাইলে পিস্তল নিয়ে নেমে পড়ূন। এত দামে কেন মাস্ক বেচবেন। মানুষের অসহায়ত্বের কথা মাথায় নাই? আল্লাহ বিচার করবে!" আরেকজন কমেন্ট…

সস্তায় ভালো প্রোটিন কি থেকে পাবেন

ছবি
প্রথমত আসি হাতের কাছে সবচেয়ে বেশি যা পাওয়া যায়ঃ 
ডিমঃ  দিনে ধরুন ৬টা খাবেন,৪টা সাদা অংশ আর ২টা পুরো। পাবেন ২৮গ্রাম প্রোটিন,দাম ৪৮ টাকা। প্রতি গ্রাম প্রোটিনের দাম ১টাকা ৭০পয়সা।মুরগীর ব্রেস্টঃ কেজি ৩৭০টাকার মত,১০০গ্রাম ৩৭টাকা,প্রোটিন পাবেন ৩০গ্রাম, প্রতি গ্রামে খরচ পড়বে ১টাকা ২৩পয়সা।পনিরঃ সাধারণত বর্তমান বাজারদর অনুযায়ী ১০০গ্রাম ১১০টাকা, পাবেন ২৫গ্রাম প্রোটিন,পার গ্রাম প্রোটিনে খরচ পড়বে ৪টাকা ৪০পয়সা।তেলাপিয়াঃ বাজারদর অনুযায়ী ১০০গ্রাম ১৫টাকা, প্রতি ১০০ গ্রামে প্রোটিন পাবেন ২৬গ্রাম,প্রতি গ্রাম ৫৭পয়সা ।(সবচেয়ে সস্তা) সয়া বিনঃ কেজি ১৬০টাকা,৫০গ্রাম ৮টাকা,প্রোটিন ২৫গ্রাম,পার গ্রাম ৩২পয়সা (৫০গ্রামের বেশী খেলে হরমোনাল বিপদ)
দ্বিতীয়ত, Whey প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট, বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পাবেন।   USA মেড ON অথবা Nitrotech Whey Gold এভারেজ প্রাইস ৫/৫.৫ পাউন্ড বা ২/২.৫ কেজি প্রায়। দাম পড়বে বর্তমান বাজারমূল্যে ৬৫০০-৭০০০ টাকা।
সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত এবং উন্নত মানের প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট সরবরাহ করে Optimum Nutrition (ON) এবং Muscletech। এই দুটি ব্রান্ডেরই ১ কেজির দাম তুলনামুলকভাবে বেশি, তাই সবাই খরচ বাঁচাতে ২ কেজ…

দারাজ অনলাইন শপ খোলার আগের কিছু কথা

ছবি
২০১৯, দুপুর ১২ঃ৫০, ক্লাশ শেষ করেই কোনমতে চার-পাঁচ চামচ ভাত মুখে দিতে দিতেই ট্রিপ রিকুয়েস্ট। বাম হাতে কলটা করেই,
ভাই কই যাবেন?
ভাই কাঁটাবন, যাবেন আপনি?
(একটু ভেবে, পরে আবার ২ঃ৪০ এর আগে ট্রিপ নাও পেতে পারি ঐদিকের, তেল ভরাও হবে আবার বাসার দিকের ট্রিপ তো পাবোই একটা না একটা) জি ভাই যাব, আমাকে ৫-৮ মিনিট সময় দেন আসতেসি।
রাস্তা ফাঁকাই ছিল, ১ঃ৪৫ পৌঁছে গেলাম। তেল ভরে অ্যাপসে গুতাগুতি করে কাটালাম ২০ মিনিট। রোদে ভাল্লাগেনা দাঁড়িয়ে থাকতে, ভাবলাম কি করার পাঠাও ফুড অন করি। দেখি ফুডে কি অবস্থা, কিভাবে কি করে, আবার সাথে কিছু বোনাসও আছে। কিছুক্ষন পর একটা অর্ডার পাই, যার ডেলিভারি ছিল ঢাবির কবি জসিম উদ্দিন হলে। প্রথমবার ফুড ডেলিভারি একটু নার্ভাস ছিলাম, সব কিছু ঠিকঠাক আনলাম কিনা নাকি ঝোল তরকারি পড়ে একাকার হয়ে গেল। কাস্টমারের কথামত একদম হলের রুমে ঢুকে টেবিলের উপর ডেলিভারি দিয়ে আসি। তবে, খুব আন্তরিক ছিলেন। পরীক্ষা ছিল বলে মনে হয়, পড়তেছিলেন বেশ মনোযোগ দিয়ে। ব্যপারটা এমন ছিল না যে পাঠাও/উবার চালিয়ে আমি জীবিকা বা সেমিস্টার ফি চালাই। বা এগুলা ছাড়া আমার হাত খরচ চালানোর কোন উপায় নেই। এখনও হয়তো অনেক বন্ধু এবং আশে…

ব্র্যান্ড ভ্যালু বনাম বাংলাদেশের ই-কমার্স

ছবি
প্রতিটা মানুষেরি বিশেষ একটা ব্রান্ডের উপরে দুর্বলতা থাকে। যেমন আমার বাবা আমানত শাহ লুঙ্গি ছাড়া অন্য লুঙ্গি জীবনেও কিনবে না। এমন কি যদি ফ্রিতে ও দেয় তাও নিবে না। তেমনি আমাদের মত যুব সমাজের একটা ইলেক্ট্রনিক্স ব্রান্ডের প্রতি একটা আলাদা আকর্ষণ রয়েছে। বিশেষ করে ল্যাপটপ আর মোবাইলের ক্ষেত্রে। অনেক মানুষ আছে অ্যাপল এর ফোন ছাড়া অন্য ফোন ধরেই দেখবে না। আবার অনেক লোক আছে অ্যাপল এর ফোন ধরেই দেখবে না।
আমার নিজেরই Samsung মোবাইলের প্রতি বিশেষ দুর্বলতা আমি যে দামের ফোন ইউস করি আমাকে যদি তার দিগুণ দামের ফোন অন্য ব্রান্ড এর দেওয়া হয় আমি জীবনেও ইউস করব না।কারণ স্যামসাঙ ইউস করে আমি মানসিক শান্তি লাভ করি। আবার এমন লোক আছে হুয়াহু বা সাওমি ইউস করে তারা স্যামসাঙ ধরেও দেখবে না।
বর্তমানে ইকমার্সে একটা সমস্যা প্রবল আকারে দেখা যাচ্ছে। সেটা হল অর্ডার কৃত পণ্য না দিতে পারলে রিপ্লেসমেন্ট দিচ্ছে।
এখানে প্রথম একটা কথা আসে আপনার যদি স্টক সমস্যা হয় আপনি এত অর্ডার নেন কেন? খাইতে পারবি না তো মাখালি কেন? আচ্ছা ভাই ভাবছিলাম ম্যানেজ করে দিত পারব কিন্তু এখন পারছি না।
প্রফেশনাল কোম্পানি গুলো কি করে এই ক্ষেত্রে? তারা কাস্টম…

ইভ্যালির বিজনেস স্ট্রাটেজি - পার্ট ২

ছবি
হালের সেনসেশন ইকমার্স কোম্পানি ইভ্যালির বিজনেস স্ট্রাটেজি নিয়ে আমরা কাটাছেড়া আর in-depth এনালাইসিস করছিলাম এই মিনি কেইস স্টাডিতে। এর আগের পর্বে আমরা reverse engineer করে দেখেছিলাম কিভাবে Value+innovation এর মাধ্যমে ইভ্যালি customer acquisition করছে। যেটাকে আমরা partially (accidental) blue ocean strategy এর সাথে ম্যাপ করতে চেষ্টা করেছিলাম।
আজকের পর্বে আমরা খুব ইন্টারেস্টিং কিছু স্ট্রাটেজিক বিজনেস angle থেকে দুইটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর খুজে বের করার চেষ্টা করবো: ১। ইভ্যালির কারেন্ট বিজনেস মডেল sustainable কিনা এবং ২। এত হিউজ পরিমাণ ডিসকাউন্ট ইভ্যালি কিভাবে দিচ্ছে? এখানে আমরা খুবই powerful, ইফেক্টিভ এবং প্র্যাক্টিকাল কিছু স্ট্রাটেজির আলোকে এগুলো ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করবো, যা কিনা সাধারণত দেশের নামকরা বিজনেস স্কুলগুলোতেও আলোচনা করা হয় না। বিজনেস স্ট্রাটেজি যেহেতু একই সাথে Art এবং Science - একজনের পয়েন্ট অফ ভিউ, এনালাইসিস, এক্সপ্ল্যানেশন আরেকজনের থেকে আলাদা হতে পারে। কিন্তু আপনি যেন লার্নিং এর পাশাপাশি স্ট্রটেজিগুলোর মূল কনসেপ্ট কাজে লাগিয়ে নিজের বিজনেসের গ্রোথ multiply করতে পারেন সে…

Uber underpaying the drivers in Bangladesh

ছবি
Uber didn't paying right amount of fare to their drivers. From the month August I was noticing Uber didn't paying me right amount fare on my trips. Then I've started noticing it closely, started taking screenshot. According to uber their fare calculation policy is .... check the video for details, it has been viewed by 1.5 lakhs people and thousand of drivers faced the same(comment)-

ওয়ার্ড থেকে পিডিএফ কনভার্ট করুন কোন সফটওয়্যার ডাউনলোড ছাড়াই

ছবি
আপনার ওয়ার্ড ফাইল পিডিএফ ফরম্যাটে কনভার্ট করতে ডকুমেন্টটি টেনে এনে লাল চিহ্ন সম্বলিত অংশে ছেড়ে দিন । ডকুমেন্ট দেওয়ার পর একটু অপেক্ষা করুন, কনভার্ট হয়ে আপনাআপনি ডাউনলোড হবে।